সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ১২:৫৭ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
কৃষি কর্মকর্তা কর্তৃক সাংবাদিক হেনস্তার প্রতিবাদে চট্টগ্রামে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ কাউখালীতে ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক কমিটি গঠন কাউখালীতে সংসারের হাল ধরতে বাবার পেশা খেয়া ঘাটের মাঝি হলেন স্কুল ছাত্রী মুনিরা ভান্ডারিয়ায় টাস্কফোর্স কমিটির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ভান্ডারিয়ায় ওয়ার্ল্ড ভিশনের দুর্যোগ সামগ্রী বিতরণ ভান্ডারিয়ায় ফুটপাতের অবৈধ দখলমুক্ত করতে উচ্ছেদ অভিযান ভান্ডারিয়ায় বজ্রপাতে কৃষকের ৪ মহিষের মৃত্যু ভান্ডারিয়ায় মুক্তিযোদ্ধাদের অনশন চার ঘন্টা পর প্রত্যাহার ভান্ডারিয়ায় দুই সন্তানের জননীকে ধর্ষনের চেষ্টা॥ লম্পটের আংশিক লিঙ্গ কর্তন কারারক্ষী পদে চাকুরীর প্রলোভন অর্থ আদায় ভান্ডারিয়ায় প্রতারক চক্রের দুই সদস্য গ্রেপ্তার ভান্ডারিয়ায় পাওনা টাকা চাওয়ায় দোকানীকে গরম পানি দিয়ে ঝলসে দেওয়া অভিযোগ (ভিডিও) ভান্ডারিয়ায় পাওয়ার গ্রিডে আগুন ৫ উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ ৪ ঘন্টা বন্ধ কাউখালীতে এনজিও ঋনে সাধারণ মানুষ জর্জরিত মঠবাড়িয়ায় জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে প্রশিক্ষণ ও উপকরন বিতরণ কাউখালীতে মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত সার্ক জার্নালিষ্ট ফোরাম বাংলাদেশ চাপ্টার এর কমিটি ঘোষণা ইন্দুরকানীতে সাঈদীর মামলার রাষ্ট্রপক্ষের সাক্ষীর মৃত্যু পিরোজপুরে জাল টাকা ব্যবসায়ীর ১৪ বছরের কারাদন্ডাদেশ ভান্ডারিয়ায় মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণ মামলার আসামী র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার কাউখালীতে হাতুড়ে ডাক্তার ও কবিরাজদের খপরে পড়ে সাধারণ মানুষ প্রতারণা শিকার
মাকে নির্যাতনের জন্য, বাবাকে পুলিশে দিলো শিশু সন্তান

মাকে নির্যাতনের জন্য, বাবাকে পুলিশে দিলো শিশু সন্তান

বাবা প্রায়ই মাকে মারপিট করতো। অসহায় ছোট্ট শিশুটি দিনের পর দিন মাকে নির্যাতনের শিকার হতে দেখেছে। অবশেষে থানায় গিয়ে বাবার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে দশ বছরের শিশুপুত্র। পুলিশ শিশু সন্তানের অভিযোগ পেয়ে ওই ব্যক্তিকে আটক করেছে। ঘটনা ঘটেছে যশোর কোতোয়ালি থানায় রোববার দুপুরের দিকে।

যশোর কোতোয়ালি থানার ওসি মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান জানান, ফয়সাল নামে শিশুটি দুপুরে থানায় এসে কাঁদতে কাঁদতে জানায়, তার পিতা জুয়েল তার মাকে মারপিট করেছে। তার অভিযোগ শুনে সাথে সাথে এসআই নুর ইসলামকে ওই শিশুসহ পাঠানো হয়। সে তার পিতা জুয়েলকে দেখিয়ে দিলে তাকে আটক করে থানায় আনা হয়।

এসআই নুর ইসলাম জানান, জুয়েলকে আটক করে থানায় আনার পর তার স্ত্রী ফাতেমা বেগমও থানায় আসেন। তিনি বলেন, স্বামীর বিরুদ্ধে তার কোনো অভিযোগ নেই। এ অবস্থায় ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশনায় মুচলেকা নিয়ে তাকে ছেড়ে দেয়া হবে। তিনি জানান, শিশুটি তাদেরকে বলেছে, সে চায় তার মা-বাবা যেন মিলেমিশে থাকে। সেভাবেই পিতা জুয়েলের কাছ থেকে মুচলেকা নেয়া হচ্ছে।

প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয় সাংবাদিক মীর মঈন হোসেন মুসা জানান, দুপুরের দিকে তিনি দেখেন একটি শিশু ছোট্ট বাইসাইকেল নিয়ে থানায় এসে দাঁড়িয়ে কাঁদছে। তিনি কাছে গিয়ে কী হয়েছে জানতে চাইলে সে তাকে বলে, তার পিতা তার মাকে মেরেছে, তাই সে থানায় জানাতে এসেছে। তখন তিনি তাকে ওসির কাছে নিয়ে যান।

এ পরিবারটি যশোর শহরের বেজপাড়া তালতলা এলাকার বাসিন্দা। পিতা জুয়েল নির্মাণ শ্রমিকের কাজ করেন। শিশু ফয়সাল যশোর ইনস্টিটিউট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র।

সূত্রঃ বাংলাদেশ জার্নাল

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন










© All rights reserved © 2019 pirojpursomoy.com
Design By Rana