সোমবার, ২৭ Jun ২০২২, ১২:১৮ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
রোমাঞ্চকর ম্যাচে রাসেলকে হারাল বসুন্ধরা কিংস পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে কাউখালীতে আলোচনা সভা ও আনন্দ র‌্যালি ‘এই আনন্দের দিনে কারও প্রতি ঘৃণা নয়, কারও প্রতি বিদ্বেষ নয়’ পদ্মা সেতু উদ্বোধন: স্মারক ডাকটিকিট, স্যুভেনির শিট, উদ্বোধন খাম ও সিলমোহর প্রকাশ পিরোজপুর থেকে মহিউদ্দিন মহারাজের নেতৃত্বে ৭ টি লঞ্চে আ.লীগ ও জেপির প্রায় ২০ হাজার নেতা কর্মী পদ্মা সেতু উদ্ভোধনে রওয়ানা ভান্ডারিয়ায় দেশীয় অস্ত্র ও মাদকসহ আটক ২ ভান্ডারিয়ায় মুক্তিযোদ্ধা ফারুক হাওলাদার এর দ্বিতীয় মৃত্যু বার্ষিকী পালিত মঠবাড়িয়ায় মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণ চেষ্টার বিচারের দাবীতে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন সিলেটে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী সমাবেশে মহারাজের নেতৃত্বে যাবেন ১৫ হাজার নেতাকর্মী কাউখালীতে জনগুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটি চলাচলের অনপুযোগী॥ জন দূর্ভোগ চরমে ধর্ষণের পর আত্মগোপনে গিয়েও ধর্ষণ করতেন শামীম কাউখালীতে মেয়েকে উত্যাক্ত করার প্রতিবাদ করায় বাবাকে পিটিয়ে জখম ভান্ডারিয়ায় ছাত্রী ধর্ষণ, ধর্ষক শামীম উত্তরা থেকে গ্রেফতার নাজিরপুরে দুই ইউপি নির্বাচন নৌকার ভরাডুবি : স্বতন্ত্র প্রার্থীর বিজয় মাসিক আইন শৃঙ্খলা ও সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত ভান্ডারিয়ায় উপনির্বাচনে সদস্য পদে আব্দুর রহমান নির্বাচিত ভান্ডারিয়ায় ধর্ষক শামীমের গ্রেফতার ও বিচারের দাবীতে মানববন্ধন কাউখালী বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত ভান্ডারিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত আবু তালহার বাবার আকুতি
প্রধানমন্ত্রীর ভাষণে জাতি হতাশ এবং ক্ষুব্ধ: মির্জা ফখরুল

প্রধানমন্ত্রীর ভাষণে জাতি হতাশ এবং ক্ষুব্ধ: মির্জা ফখরুল

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল জাতির উদ্দেশ্যে যে ভাষণ দিয়েছেন এই ভাষণে জাতি হতাশ এবং ক্ষুব্ধ হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বুধবার (৮ জানুয়ারি) রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে অনানুষ্ঠানিক কাজে এসে সাংবাদিকদের সামনে এসব কথা বলেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, ২০১৮ সালের ৩০ শে ডিসেম্বর ভোট ডাকাতি করে সরকার ক্ষমতায় এসেছে। দেশের অর্থনৈতিক আজ ভঙ্গুর অবস্থায়। তারপরও দেশের মানুষ মনে করেছিল সংকট নিরসনের জন্য একটা পথ তার এ বক্তব্যের মধ্যে থাকবে। নতুন একটি নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দেয়ার একটা ইঙ্গিত দেবেন এমনটাই জাতি মনে করেছিল। কোনটাই তিনি করেননি। সেই সংকট নিরসনের জন্য তিনি কোন পথ দেখান নি।অন্যদিকে তিনি কিছু বক্তব্য রেখেছেন যেসব বক্তব্য সত্য নয়। যেমন তিনি বলেছেন ৭৫ পরবর্তী সময়ে দেশের মানুষ জরাজীর্ণ ছিল, দেশের মানুষ কঙ্কাল হয়েছিল। আমি বলি এই ঘটনা তার উল্টো। ১৯৭২ থেকে ৭৫ ওই সময়ে আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে এ দেশে চরম দুর্ভিক্ষ হয়েছিল। কিন্তু তারপরে প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বে এসকল দুর্ভিক্ষের সমাধান ঘটে। তারপরে দেশে পটেনশিয়াল ইকনোমিক্যাল সিচুয়েশন তৈরি হয়। আজকে বাংলাদেশের যে অর্থনীতি সেই ভিত্তি তৈরি করেন প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান। যেখানে ৭৫ সালে বাকশাল গঠন করা হয়েছিল এরপর এসে জিয়াউর রহমান বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

তিনি বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে সবসময় বিএনপিকে দোষারোপ করা হয়। বিএনপি সন্ত্রাস করছে বলেছেন তারা। কিন্তু তারা ভুলে গেছেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে তারা ১৭৩ দিন হরতাল করেছিলেন। সে সময় বাসে ১১জন ব্যক্তিকে পুড়িয়ে মারা হয়েছিল। এছাড়া অনেক লোক আহত হয়েছিল সেই আন্দোলনের ফলে। যে রাজনৈতিক কালচার তখনও ছিল এটা এখনও আছে। আর এখনো এই আওয়ামী লীগ সরকারই এটা করছে। তারা হত্যা করছেন, বিচারবহির্ভূত হত্যা করছেন, তুলে নিয়ে গিয়ে মারছেন, আর নিখোঁজ হয়েছে, গুম হয়েছে এ সরকারের সময়। এই জিনিসগুলো তার বক্তব্যের মধ্যে আসেনি।

ফখরুল বলেন, প্রধানমন্ত্রী বক্তব্যের মধ্যে যে আশা ভরসা রাখার জন্য বলেছেন সে আশা ভরসা মানুষ কোথা থেকে রাখবে। দেশের অর্থনীতির চরম বিপর্যয় আছে। তিনি বলছেন আস্থা রাখার জন্য, মানুষ কোথা থেকে আস্থা রাখবে। প্রত্যেকটা জিনিসের দাম বেড়েছে। এমন কোন জিনিস নাই যে দাম বাড়েনি। সে ক্ষেত্রে সাধারণ মানুষের জীবন দুর্বিষহ হয়ে পড়েছে। এই অবস্থায় যে তারা বলছে বাংলাদেশে এখন উন্নতির রোল মডেল আমি বলব এটা হচ্ছে দুর্নীতির রোল মডেল, দুঃশাসনের রোল মডেল।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর গতকালের বক্তব্য নিজেদের আত্মতুষ্টি দেয়ার জন্য ভাষণ দিয়েছেন। কারণ তারা তো জনগণ থেকে অনেক দূরে সরে গেছে। জনগণের ভাষা তারা বুঝতে পারছেন না। জনগণের আওয়াজ তারা শুনছেন না। উনার বক্তব্য তারই বহিঃপ্রকাশ।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন










© All rights reserved © 2019 pirojpursomoy.com
Design By Rana