মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৫৯ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
বজ্রপাতে স্কুল ছাত্রের মৃত্যু ভান্ডারিয়া পৌরসভা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন বিষয়ক মতবিনিময় সভা নির্বাচনি এলাকার খাজনা মওকুফের ঘোষণা দিলেন মহিউদ্দিন মহারাজ কাউখালীতে কীটনাশক পান করে কৃষকের আত্মহত্যা কাউখালীতে অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কোয়ার্টারে থাকা একটি পরিবারের ৪ জন সদস্য ভান্ডারিয়ায় পাসপোর্ট নিয়ে ফেরা হলো না ঘরে, সড়ক দুর্ঘটনায় কলেজ ছাত্রের মৃত্যু বুয়েট নিয়ে সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নেতা শাফায়েত হোসেন অভির কিছু কথোপকথন বীর মুক্তিযোদ্ধারা হলেন জাতীর শ্রেষ্ঠ সন্তান -মহিউদ্দিন মহারাজ এমপি কাউখালীতে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন কাউখালীতে মৎস্য সুফলভোগী জেলেদের মাঝে বকনা বাছুর বিতরন ভান্ডারিয়ায় বিহারী লালমিত্র পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের স্কাউটদের দীক্ষা অনুষ্ঠান ভান্ডারিয়ায় পিকআপে করে গরু চুরির সময় ৩ চোর আটক কাউখালী উপজেলা পরিসংখ্যান কার্যালয়ে জনবল সংকট থাকার কারণে জনগণ কাঙ্ক্ষিত সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে পিরোজপুরে স্ত্রী হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজা প্রাপ্ত স্বামী ১৪ বছর পর গ্রেপ্তার পিরোজপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় আবারো ৩ জন নিহত পিরোজপুরের এক জেলের জালে ধরা পড়ল ২০ লাখ টাকার লাক্ষা মাছ কাউখালীতে বঙ্গবন্ধুর ১০৪ তম জন্মদিবস ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত ভান্ডারিয়ায় জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস পালিত পিরোজপুরে বাস অটোরিকশা ও মোটরসাইকেলের ত্রিমুখী সংঘর্ষে ৭ জন নিহত কাউখালীতে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে ঐতিহাসিক ৭ ই মার্চ উদযাপিত
কলকাতা  থেকে সুস্মিতা প্রেমের  টানে স্বরূপকাঠীতে 

কলকাতা  থেকে সুস্মিতা প্রেমের  টানে স্বরূপকাঠীতে 

কলকাতা থেকে সুস্মিতা প্রেমের টেনে স্বরূপকাঠীতে

স্বরূপকাঠি ‌ প্রতিনিধি
পিরোজপুর নেছারাবাদ  স্বরূপকাঠিতে প্রেমের টানে বাংলাদেশে ছুটে এসেছেন সুস্মিতা  নামে এক তরুণী। কলকাতার বেলুর থেকে এসেছে  সুস্মিতা ।কোন রকম পাসপোর্ট ছাড়াই যশোরের বেনাপোল হয়ে দালাল চক্রকে ১৫ হাজার টাকা দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে সুস্মিতা।
জানা যায় সুস্মিতা সঙ্গে চার বছর থেকে ফেসবুকে পরিচয় হয় মোঃ খাইরলের।স্বরূপকাঠী উপজেলার মাহমুদকাঠী সোলায়মানের ছেলে খাইরুল। খাইরুল তার বাবা সোলায়মানের সাথে কুমিল্লায় খাবার হোটেলের ব্যবসা করে।সেখানে বসেই দুজনার সাথে ফেইজবুক থেকে পরিচয়।দীর্ঘ চার বছর ধরে বার্তা আদান প্রদানের মাধ্যমে তাদের মধ্যে হয়ে ওঠে গভীর প্রেমের সম্পর্ক  । সুস্মিতার বাবা মা বিয়ে ঠিক করলে সেখান থেকে পালিয়ে আসে। বেলুর থেকে বেনাপোলের বর্ডার  হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে এবং সেখান থেকে ঢাকার গাবতলিতে আসে। সেখানে পূর্ব থেকেই অপেক্ষারত থাকে  খাইরুল। তারা চার দিন কুমিল্লায় অবস্থান করে এরপর গ্রামের বাড়ীতে নিয়ে আসে এবং এখানেও তিন দিন অবস্থান করার পর বিষয়টি জানাজনি হয়ে গেলে মিডিয়া পর্যন্ত সংবাদ পৌছে যায়।
এ বিষয় খাইরুলের মায়ের কাছে জানতে চাইলে সে প্রথমে বিষয়টি অস্বীকার করে। যখন প্রসাশনের কথা বলা হয় তখন খাইরুলের মা পা জড়িয়ে ধরতে চায় এবং বলে ভাই কি করবো বুজতে পারছিনা ছেলের সাথে ফেইজবুকে পরিচয়। বাড়ী বলছে কলকাতার বেলুর থেকে এসেছে, আমরা  ওর বাবা মায়ের সাথে কথাও বলেছি তারা বলে সুস্মিতাকে জিজ্ঞাসা করেন ও যদি আসতে চায় তাহলে আমরা গিয়ে নিয়ে আসবো।সুস্মিতার কাছে এবিষয় জানতে চাইলে সে বলে, না আমি ফিরো জাবোনা আমি এখানে থাকবো।কিভাবে পরিচয় জানকে চাইলে সে জানায় , ফেইজবুকে খাইরুলে সাথে আমার চার বছরের সম্পর্ক এবং ম্যাসেঞ্জারে ওর সাথে কথা হইতো এভাবে একে অপরকে ভালোবেসেছি। তুমি হিন্ধু আর খাইরুল মুসলিম এটা তুমি জানতে? সুস্মিতা বলে আমি সবই জানি ।মুসলিম ছেলের সাথে একটি হিন্ধু মেয়ের বিয়ে হয় কিনা জানতে চাইলে সুস্মিতা বলে সমস্যা নাই আমি আমার ধর্ম ত্যাগ করে মুসলিম হবো। সুস্মিতা আরো বলে,বাংলাদেশের কৃষ্টি কালচার সম্পর্কে আমি খাইরুলের কাছ থেকে সবকিছু জোনেছি।তাছাড়া খাইরুলের পরিবার সম্পর্কে সব কিছু জেনেই আমি বাংলাদেশে আসি। আমি খাইরুল কে বিয়ে করতে চাই, কলকাতায় ফিরে যাবোনা।পরে এ রিপোর্ট লেখার পূর্বে পর্যন্ত খাইরুল এবং সুস্মিতা সম্পর্কে সর্ব শেষ তথ্য জানতে চাইলে খাইরলের বোন বলে তারা কোথয় আছে আমরা জনিনা ওদের মোবাইল বন্ধ আছে বর্তমানে।খাইরুলের বাড়ির আসে পাশে খোজ নিয়ে জানাযায় তারা দুজনে গ্রামে কোথাও লুকিয়ে আছে ।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 pirojpursomoy.com
Design By Rana