বুধবার, ১৭ Jul ২০২৪, ০১:২৬ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
কাউখালীতে বিআরডিবি অফিসের জনবল সংকট, কাঙ্খিত সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে ভুক্তভোগী জনগণ কাউখালীতে ৪০ পিস ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক কাউখালীতে কৃষকদের মাঝে ফলের চারা বিতরণ বালু বোঝাই বাল্ক‌হেডের ধাক্কায় ব্রিজ ভে‌ঙে খা‌লে এক বছরেও পুণ:নির্মাণ হয়নি নাজিরপুরে যে কারনে মাকে কুপিয়ে হত্যা করলো ছেলে ৯ বছরের সাজার জন্য ৩৫ বছর পালিয়েও শেষ রক্ষা হলো না স্কুল ছাত্রী অপহরণের ৩৩ দিন হলেও এখন পর্যন্ত উদ্ধার করা যায়নি কাউখালীতে ৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ইসলাম শিক্ষার ক্লাস নিচ্ছেন হিন্দু শিক্ষক পিরোজপুরে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস উপলক্ষে বিশেষ সেবা কার্যক্রম উদ্বোধন কাউখালী সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কক্ষে দেখা গেল সাপ কাউখালী উপজেলা অস্থায়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেই চিকিৎসক নেই বেড, রোগীদের দুর্ভোগ চরমে কাউখালীতে ঘূর্ণিঝড় রিমালে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে হাইজিন কিট বিতরন পিরোজপুরে দুঃস্থ ও অসহায় পরিবারের মাঝে ঢেউটিন ও নগদ অথের্র চেক বিতরণ কাউখালীতে জমি জমা নিয়ে সংঘর্ষে আহত ৪, গ্রেপ্তার ৪ নেছারাবাদে রিমালে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ব্র্যাকের মানবিক সহায়তা প্রদান সরকার আপনাদের পাশে আছে, আমরা আপনাদের খোঁজখবর নিচ্ছি- জেলা প্রশাসক জাহেদুর রহমান কাউখালীতে প্রান্তিক চাষীদের মাঝে সার, বীজ ও নারকেল চারা বিতরণ ভাণ্ডারিয়ায় পিকআপের ধাক্কায় ২ পথচারী নিহত, আহত ৪ সকলে মিলে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করলে এলাকার শতভাগ উন্নয়ন করা সম্ভব- মহিউদ্দিন মহারাজ এমপি ভান্ডারিয়ায় বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত
বাংলাদেশের কাস্টমস ভবন নির্মাণে বাধা, আখাউড়া সীমান্তে স্থাপনা নির্মাণের  দুই রকম চিত্র

বাংলাদেশের কাস্টমস ভবন নির্মাণে বাধা, আখাউড়া সীমান্তে স্থাপনা নির্মাণের  দুই রকম চিত্র

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা

দফায় দফায় বাধা, বাধার মুখে  তুলতে পারছে না আখাউড়া স্থলবন্দরে নির্মাণাধীন ইমিগ্রেশন অ্যান্ড কাস্টমস ভবন। এ কারনে পিছিয়ে  পড়েছে নির্মাণ কাজ। এক থেকে দেড় বছরের মধ্যে যে কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল, তার সময় গিয়ে  ৩ বছরে দাড়িয়েছে । সংশ্লিষ্ট সূত্রে  জানা যায়, সীমান্তের দেড়শ গজের মধ্যে এই স্থাপনা নির্মাণ কাজে ভারতীয় পক্ষ শুরু থেকে বাধা দিয়ে আসছে। যে কারণে নির্মান কাজ এগুচ্ছে না। অন্যদিকে ভারত সীমান্তের জিরো পয়েন্টের দেয়াল ঘেঁষে স্থাপনা নির্মাণ কাজ চলছে পুরোদমে। বাধা দেওয়া সত্বে ও ভারতীয়রা তা মানছেনা। জরাজীর্ণ একটি ভবনে বর্তমানে বাংলাদেশের ইমিগ্রেশন ও কাস্টমস অফিসের কাজ চলছে।

জানা যায়, ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে আখাউড়া স্থলবন্দরে ৬ তলা বিশিষ্ট ইমিগ্রেশন এবং কাস্টমস ভবন নির্মাণ কাজের দরপত্র আহ্বান করেন গণপূর্ত বিভাগ। ৬ কোটি ২৪ লাখ টাকায় এই ভবন নির্মাণে চুক্তি হয় একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে। চুক্তি অনুযায়ী ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে কাজ করা শুরু হলে ভারতীয়দের পক্ষ থেকে বাধা আসে। এই কাজের ঠিকাদার গিয়াস উদ্দিন জানান, প্রথমে ওই স্থানে কাজ করা যাবে না বলে বাধা দেয়া হয়। এরপর পাইলিং করতে বাধা দেয়। পাইলিংয়ের পর বেইজ ও গ্রেডভিমের কাজ শেষে ৮ ফুট পর্যন্ত কলাম হওয়ার পর আবার কাজে বাধা আসে। তারা ৬ তলা ভবনে আপত্তি জানায়। ৩৫ ফুট উচ্চতায় ভবন নির্মাণ সীমাবন্ধ রাখতে বলে। এরমধ্যে দোতলা পর্যন্ত ছাদ এবং তৃতীয় তলার ওপরে টিন দেয়ার শর্ত দেয়া হয়। এই শর্ত মেনেই নতুন ড্রয়িং-ডিজাইন করে পাঠানো হয়। কিন্তু এরপর দীর্ঘদিন পেরুলেও ভারতীয় কর্তৃপক্ষ এ কাজে সম্মতি দেয়নি। কাজ ঠিকভাবে করতে পারলে ২০১৮ সালে এই ভবন নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হতো বলে জানান তিনি। গিয়াস উদ্দিন বলেন, আমাদের কাজে বাধা দিলেও তারা কিন্তু জিরোপয়েন্টে তাদের স্থাপনা নির্মাণ কাজ বাংলাদেশের বাধা অমান্য করেই চালিয়ে যাচ্ছে।
আখাউড়া ইমিগ্রেশন সূত্র জানায়, প্রথম ৬ তলা ভবনের প্ল্যান তাদের কাছে পাঠানো হয়েছিলো। এতে তারা আপত্তি দিলে এ বছরের জুন মাসে সংশোধিত প্ল্যান পাঠানো হয়। তাদের শর্ত মেনে ৩৫ ফুট উচ্চতার মধ্যেই কাজ করার প্ল্যান দেয়া হয়। তারপরও সম্মতি দিতে সময় ক্ষেপণ করছে তারা। কাজ ও করতে দিচ্ছে না।
এদিকে ভবন উঁচু করাতে আপত্তি থাকায় পাশে বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়ে কাজ শুরু করলে তাতেও বাধা দেয় ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী। ১৬ই আগস্ট জিরোলাইন ক্রস করে এসে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী এই কাজে বাধা দেয়। এমনকি কাজে নিয়োজিত শ্রমিকদের ভয়ভীতি দেখায়। এরপর বিজিবি জিরোপয়েন্টে তাদের ভবন নির্মাণ কাজে আপত্তি দেয়। ইমিগ্রেশন সূত্র জানায়, ভবনের উচ্চতায় আপত্তি আসায় তাদের দুটি অফিস ইমিগ্রেশন ও কাস্টমসের স্থান সংকুলান হবে না বলে ৪০ ফুট অন্য  পাশে বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়া হয়। সে কারণে সয়েল টেস্ট এবং পুকুরের পাড়ে প্রতিরোধ দেয়াল নির্মাণ কাজ শুরু করলে তারা এসে বাধা দেয়। ইমিগ্রেশনের এক কর্মকর্তা বলেন, সঙ্গে সঙ্গে তারা বিষয়টি বিজিবিকে জানালে তারা বিএসএস’র সঙ্গে কথা বলেন। বিএসএফ ওপরের নির্দেশে বাধা দিচ্ছে বলে তাদেরকে জানায়। সর্বশেষ বাধা দেয়ার পর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার মো. আনিসুর রহমান বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের ২৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক, বিএসএফ ১২০ ব্যাটালিয়নের কমান্ড্যান্ট, আগরতলা ইন্টিগ্রেটেড চেকপোস্টের ম্যানেজার, আখাউড়া ইমিগ্রেশন ইনচার্জকে চিঠি দেন। চিঠিতে কাজটি সম্পন্ন করার জন্য সবার সহযোগিতা চাওয়া হয়। তাতে ভবনটি বর্তমানে যেভাবে নির্মাণ হচ্ছে এর বিবরণও তুলে ধরা হয়। জানানো হয়, ভবনটির সর্বোচ্চ উচ্চতা হবে ৩৫ ফুট এবং এর ছাদ ঢালু থাকবে। বেজমেন্ট থাকবে না। বিল্ডিংটির মোট আয়তন ১৩ হাজার ৬২০ বর্গফুট। এরমধ্যে ১০ হাজার ৮২০ বর্গফুট ভবনের ফাউন্ডেশন কাজ সম্পন্ন হয়েছে। বাকি ২৮০০ বর্গফুট ডিজাইন অনুযায়ী  পুকুরের মধ্যে  থাকায় ভবনটি সংরক্ষণের জন্য রিটেইনিং ওয়াল নির্মাণের প্রয়োজনীয়তা দেখা দিয়েছে।নকশা অনুযায়ী ভবন নির্মাণের জন্য পুকুরের মধ্যে সয়েল টেস্ট করা প্রয়োজন।  সরেজমিনে দেখা গেছে, জিরোপয়েন্টে দেয়াল ঘেঁষেই স্থাপনা নির্মাণ করছে ভারত। সূত্র জানায়, সেখানে বিএসএস’র ব্যারাক ও কনফারেন্স রুম বানানো হচ্ছে। বিভিন্ন সময় এই কাজে বিজিবি বাধা দিলেও তা গ্রাহ্য করছে না ভারতীয় পক্ষ। এ বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার মো. আনিসুর রহমান বলেন- আমরা চাচ্ছি দ্রুত কাজটি শেষ করতে। এতে দুই দেশের নাগরিকদের কষ্ট কমবে। প্রথমে আমরা ৬ তলা করতে চেয়েছিলাম। এরপর তাদের কথামতো আমরা দু’তলার প্ল্যান দেই। ২ মাসের ওপরে হয়েছে আমরা পাস করা প্ল্যান ড্রয়িংসহ তাদের দিয়েছি। কিন্তু আজকে পর্যন্ত তাদের কোনো সাড়া নেই। আমরা কাজ করতে গেলে বলে এটা দিল্লি থেকে এপ্রোপড হয়ে আসেনি। আপনারা কাজ বন্ধ রাখেন। তাদের চাহিদামতো সব কাগজপত্র আমরা দিয়েছি। সীমান্তের এই কাজের বিষয়ে আমাদের কথা বলারও সুযোগ নেই। বিজিবি এবং বিএসএফ এনিয়ে আলাপ-আলোচনা করেছে।  বিজিবি ২৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল ইকবাল হোসেন বলেন, দেড়শো গজের মধ্যে কোনো কাজ করতে হলে ডিজাইন-নকশা পাঠাতে হয়। এ বিষয়ে আমরা তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। যাতে তাড়াতাড়ি সম্মতি দিয়ে দেন। আর জিরো পয়েন্টের দেয়াল ঘেঁষে বিএসএফ যে স্থাপনা করছে সেটি আর এটি এক নয়।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 pirojpursomoy.com
Design By Rana
error: Content is protected !!