শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১০:২৫ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
ভান্ডারিয়ায় সুন্দরবন কুরিয়ার এন্ড পার্সেল সার্ভিসের উদ্বোধন ছিনতাই হওয়া গাড়ি ভান্ডারিয়া থেকে উদ্ধার তিন মামলায় গোল্ডেন মনির ফের ৯ দিনের রিমান্ডে ‘বাংলাদেশে ইসলাম ধর্মের জন্য সবচেয়ে বেশি কাজ করেছেন বঙ্গবন্ধু’ করোনায় আরো ৩৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৩৩৬ বাসে অগ্নিসংযোগ: বিএনপির ৬৫ নেতাকর্মীর জামিন বহাল ইতিহাস আর ঐতিহ্যের সাক্ষী শেরপুরের ‘মাইসাহেবা’ মসজিদ আন্দোলনের নামে অশান্তি সৃষ্টি করলে কঠোর ব্যবস্থা: ওবায়দুল কাদের বুকের রক্ত দিয়ে হলেও বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপন হবেই: ড. আওলাদ সেরা অভিনেতা তারিক আনাম, সেরা অভিনেত্রী সুনেরা; ন’ডড়াই সেরা চলচ্চিত্র পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী জাফরুল্লাহ খান জামালির মৃত্যু বগুড়ায় পুলিশ পরিচয়ে টাকা ছিনতাই, ৬ বছর পর আসামি গ্রেপ্তার আমিরাতে হামলার হুমকি দিল ইরান এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণ: মামলার অভিযোগপত্র দাখিল আজ ভান্ডারিয়ায় ৬ষ্ঠদিনে হেলথ এসিস্ট্যান্ট এসোসিয়েশনের কর্মবিরতি বিএনপির রাজনীতি ফেসবুক ও ভিডিও কলে সীমাবদ্ধ : ওবায়দুল কাদের মুক্তি পাচ্ছেন ইয়েমেনে বিদ্রোহীদের হাতে বন্দী ৫ বাংলাদেশি ২ লাখ ৮০ হাজার ইয়াবাসহ মিয়ানমারের ৭ নাগরিক আটক করোনায় আক্রান্ত এমপি এমিলি ভারতে নতুন করে সাড়ে ৩৬ হাজার করোনা রোগী শনাক্ত



টিভি সিরিয়াল দেখেই চাচাকে হত্যার কৌশল রপ্ত করেন ভাতিজা!

টিভি সিরিয়াল দেখেই চাচাকে হত্যার কৌশল রপ্ত করেন ভাতিজা!



সম্প্রতি চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে ড্রামের ভেতর থেকে উদ্ধার হয় নিহত সিদ্দিকুর রহমানের (৩৫) মরদেহ। এই হত্যা মামলার প্রধান আসামি সারোয়ার আলম (২৫)কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। গ্রেফতার হওয়া আসামি ইতোমধ্যে হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন। এই নিয়ে বুধবার চাঁদপুরে পিবিআই কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে নিহত সিদ্দিকুর রহমান হত্যার কারণ তুলে ধরা হয়। পিবিআই’র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শঙ্কর কুমার জানান, পারিবারিক জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে গত ১০ নভেম্বর কুমিল্লার পদুয়ার বাজার এলাকার একটি বাড়িতে সারোয়ার আলম তার সহযোগীকে নিয়ে নিকটাত্মীয় বৈদ্যুতিক মিস্ত্রি সিদ্দিকুর রহমানকে নির্মমভাবে হত্যা করে লাশ ড্রামে করে চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে সড়কের পাশে ফেলে যায়। এই ঘটনার পর পেশায় ফ্রিজ মিস্ত্রি সারোয়ার আলম কৌশলে আত্মগোপন করে। পরে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে গত সোমবার কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।  এ সময় নিহত সিদ্দিকুর রহমানের ব্যবহৃত মোটরসাইকেল, মুঠোফোন এবং হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত সামগ্রীও উদ্ধার করে পিবিআই। পিবিআই’র এই কর্মকর্তা আরও জানান, ঘটনার শিকার সিদ্দিকুর রহমান এবং আসামি সারোয়ার আলমের বাড়ি কুমিল্লা সদরের কাজীপাড়া এলাকায়। সম্পর্কে তারা ছিলেন চাচা ও ভাতিজা। ভাতিজা সারোয়ার আলম তার চাচার কাছে নিজের বসতঘরে আসা যাওয়ার সড়কের জন্য ১০ ফুট জায়গা দাবি করেন। এতে চাচা সিদ্দিকুর রহমান তা দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এই নিয়ে কয়েক দফা সালিশ বৈঠকও হয়। আর গত ৯ মাস আগে এমন আব্দার করে ব্যর্থ হয়ে ভারতীয় টিভি সিরিয়াল দেখে দেখে চাচাকে হত্যার কৌশল রপ্ত করেন ভাতিজা সারোয়ার আলম। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৯ নভেম্বর কুমিল্লা বিশ্বরোডের পাশে পদুয়ার বাজারের একটি বাড়ি ভাড়া নিয়ে ক্রিকেট খেলার স্ট্যাম্প দিয়ে পিটিয়ে কাবু করে সিদ্দিকুর রহমানকে। পরে ধারাল চাকু দিয়ে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে এবং গলা কেটে হত্যা করা হয়। শুধু তাই নয়, ঘটনার শিকার ব্যক্তিকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা যাতে শনাক্ত করতে না পারে- তার জন্য নিহতের দুই হাতের বুড়ো আঙুল থেঁতলে দেওয়া হয়। পরে নিহতের লাশ চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কের শাহরাস্তি উপজেলার রাজাপুর এলাকায় ফেলে গা ঢাকা দেয় সারোয়ার আলম ও তার আরেক সহযোগী। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শঙ্কর কুমার আরও জানান, চাচাকে কিভাবে হত্যার পরিকল্পনা করা হয়-তা পুলিশ এবং আদালতের কাছে অকপটে স্বীকার করেছেন সারোয়ার আলম। আর এই ঘটনায় জড়িত অন্যজনকেও খোঁজা হচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে চাঁদপুরে পিবিআইয়ে কর্মরত অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন। এদিকে, ঘটনার দায় স্বীকার করে চাঁদপুরের আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেওয়ার পর আসামি সারোয়ার আলমকে জেলহাজতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। অন্যদিকে, চাঞ্চল্যকর এই হত্যা মামলা পিবিআই তদন্ত করলেও নিহতের মা লুৎফুন্নাহার শাহরাস্তি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। প্রসঙ্গত, নিহত সিদ্দিকুর রহমান প্রথম স্ত্রী রেখে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। তাকে হত্যার পর পরিবারের ধারণা ছিল প্রথম স্ত্রী প্রতিশোধ নিতে স্বামীকে হত্যা করেছে। তবে পিবিআই হত্যায় জড়িত মূল আসামিকে গ্রেফতার করার পর নির্মম এই হত্যাকাণ্ডের জট উম্মোচিত হল।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন










© All rights reserved © 2019 pirojpursomoy.com
Design By Rana