বুধবার, ২০ জানুয়ারী ২০২১, ০৭:৩৬ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
ভাণ্ডারিয়ায় ট্রলি উল্টে ড্রাইভার নিহত মার্চ-এপ্রিলে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুর প্রত্যাশা ত্রাণ প্রতিমন্ত্রীর আশুগঞ্জে লালপুর প্রবাসী কল্যান ফাউন্ডেশন ট্রাষ্ট এর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে শারীরিক অক্ষমতাদের সহযোগিতা প্রদান উইন্ডিজের বিপক্ষে বাংলাদেশের সহজ জয় পিরোজপুরের বাংলাদেশ ক্ষুদ্র মৎস্যজীবী জেল সমিতির ৬ দফা দাবিতে মানব বন্ধন ও স্মারক লিপি প্রদান সোনাগাজীর মজলিশপুরে ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগের কর্মীসভা অনুষ্ঠিত। পিরোজপুরে শিশু কণ্যাকে হত্যার দায়ে সৎমায়ের যাবজ্জীবন কারাদন্ড কাল দেশে আসছে ৩৫ লাখ ডোজ করোনার টিকা পিরোজপুরে দুই যুবলীগ নেতার হাত-পা ভেঙে দিল প্রতিপক্ষরা ওসি প্রদীপের সাজানো অস্ত্র ও মাদকের দুই মামলায় সাংবাদিক ফরিদুলের স্থায়ী জামিন : প্রত্যাহারের দাবি ঈদগাঁও ইসলামবাদে মা- মেয়েকে কুপিয়ে হত্যা মঠবাড়িয়ায় আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ ভোজ্য ও প্রাণিখাদ্যে ব্যবহৃত লবণে আয়োডিন না থাকলে জেল-জরিমানা যা করতে এসেছিলাম; তা-ই করেছি: ট্রাম্প শাহজালালে ২ কোটি টাকার সোনা আটক গরুর মাংস খাওয়া নিয়ে কথা বলায় অভিনেত্রীকে গণধর্ষণ ও খুনের হুমকি সবার নজর আজ সাকিবের দিকে নীরব ঘাতক ১০ মৌখিক পাপ ৪৬ তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে আজ শপথ নিচ্ছেন বাইডেন, জেনে নিন সময় পাথর বোঝাই ডাম্পারের নিচে চাপা পড়ে নিভে গেল ১৪ প্রাণ
সালিশে ছাত্রীকে বিয়ে করার চাপ দেওয়ায় শিক্ষকের আত্মহত্যা!

সালিশে ছাত্রীকে বিয়ে করার চাপ দেওয়ায় শিক্ষকের আত্মহত্যা!

সালিশে ছাত্রীকে বিয়ে করার চাপ দেওয়া হয়। জোর করে আয়োজন করা হয় বিয়ের অনুষ্ঠানেরও। তবে অপমান সহ্য করতে পারেননি শিক্ষক।মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন তিনি। এরপর রেললাইনের পাশ থেকে উদ্ধার করা হয় তার দেহ। পরিবারের দাবি, লজ্জায়, অপমানে আত্মহত্যা করেছেন তিনি। এ ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবিতে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুরে দফায় দফায় জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান স্থানীয়রা।

ভারতীয় গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনের খবরে বলা হয়েছে, উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুরের গাইসলের ধনতলায় একটি কোচিং সেন্টারের বিজ্ঞানের শিক্ষক ছিলেন বছর তেইশের মুজ্জাকির ইসলাম। অভিযোগ, সপ্তাহখানেক আগে ওই কোচিং সেন্টারে প্রথম বর্ষের এক ছাত্রী ওই শিক্ষকের ঘাড়ে হাত দেওয়া অবস্থায় ভিডিও রেকর্ডিং করে। এরপর ওই ছাত্রীকে বিয়ে করার জন্য শিক্ষকের উপর চাপ তৈরি করা হয়। কিন্তু বিয়েতে রাজি হননি শিক্ষক। তার জেরে ধনতলার কোচিং সেন্টারে ভাঙচুর করে কম্পিউটারে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। আতঙ্কিত হয়ে পড়েন শিক্ষক। এই পরিস্থিতিতে শুক্রবার গাইসল পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামী তৃণমূলের সাব্বির আহমেদের উদ্যোগে সালিশি সভা বসে। উপস্থিতি ছিলেন ওই পঞ্চায়েতের সদস্য মহম্মদ কাইজার আলমসহ জেলা পরিষদের সহকারী সভাপতি ফারহাত বানুর স্বামী তথা তৃণমূল নেতা জাভেদ আখতার এবং পঞ্চায়েত সমিতির তৃণমূল সদস্য জাফরুল ইসলাম।
সালিশি সভায় ওই শিক্ষককে বিয়ে করার দিনক্ষণ ঠিক করে দেওয়া হয়। রবিবার ওই ছাত্রীর বিয়ের আয়োজনও করা হয়। তবে বিয়ে করতে যাননি শিক্ষক। বাড়ি থেকে কয়েক কিলোমিটার দূরে গাইসোল রেললাইন থেকে তার দেহ উদ্ধার করা হয়।

মৃতের মামা হাসালুন হকের অভিযোগ, “জোর করে প্রধান ও তৃণমূলের জেলা পরিষদের প্রাক্তন সদস্য ভাগ্নেকে বিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। ভিডিও ভাইরাল করে বিয়ে করতে চাপ দেয়। সেটা সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়েছে সে।”

মৃতের বাবা দবিরুল ইসলামপুরের অভিযোগ, ‘আমার ছেলেকে ফাঁসিয়ে জোর করে বিয়ে দেওয়ার চক্রান্ত চলছিল। সেটা সহ্য করতে না পেরে অপমানিত হয়ে, রেললাইনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। দোষীদের শাস্তি চাই।’

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন













© All rights reserved © 2019 pirojpursomoy.com
Design By Rana