মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ০৪:৩৬ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
ঈদে বাড়ি ফেরার পথে পদ্মার চরে সন্তান জন্ম দিলেন বরিশালের সুমা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডবের ঘটনায় সরাইল থানার ওসির বদলি মঠবাড়িয়ার ওসি সাহেব পারবেন তো কথা রাখতে ! মঠবাড়িয়ায় থানায় নবাগত ওসির যোগদান মঠবাড়ীয়ায় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে দুস্থ পরিবারের মাঝে নগদ অর্থ বিতরণ মঠবড়িয়ায় বেগম খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া ও ইফতার মাহফিল রাজাপুরে দুঃস্থদের মাঝে ঈদবস্ত্র বিতরন করেছেন ইঞ্জিনিয়ার আবুল কাসেম সীমান্ত ভান্ডারিয়ায় ঈদের কেনাকাটায় মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রাকচাপায় সিএনজি আরোহি  নিহত আহত-৩ মঠবাড়িয়া থানার ওসি মাসুদুজ্জামানের বিদায়ী সংবর্ধনা মঠবাড়িয়ায় রেড ক্রিসেন্ট‘র উদ্যোগে নগদ অর্থ ও বীজ বিতরণ ফাঁকা বাড়িতে ইফতার দিতে এসে রোজাদার গৃহবধূকে ধর্ষণ লালমাইয়ে প্রবাসীর স্ত্রী নিখোঁজ ভান্ডারিয়ায় নবাগত ইউএনও’র সাথে সাংবাদিকদের মতবিনিময় মঠবাড়িয়ায় ব্যাংকের উদ্যোগে রমজানের উপহার সামগ্রী বিতরণ ২শ টাকার বাজার করে ৩শ টাকার হিসাব দেওয়ায় শরণখোলায় জামাইকে ত্যাজ্যপুত্র করলো শশুর! পিরোজপুরে টাউট রফিকুল ইসলামের কাছে এক অসহায় পরিবার জিম্মি ও পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বংশা‌লে রিকশাওয়া‌লা‌কে নির্যাতনকারী ব্য‌ক্তি‌কে আটক কর‌লো পু‌লিশ মঠবাড়িয়ায় দূর্বৃত্তের দেয়া চেতনা নাশকে ৬ জন অচেতন ‘ সুরক্ষা ও নিরাপত্তা সাংবাদিকদের প্রত্যাশা’
সরাইলে কাবিটা প্রকল্পের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ, বিপাকে কৃষক

সরাইলে কাবিটা প্রকল্পের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ, বিপাকে কৃষক

জহির সিকদার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধিঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার মলাইশ- শাহজাদাপুর রাস্তা রক্ষণাবেক্ষণ ও মেরামতের জন্য কাজের বিনিময়ে টাকা কর্মসূচি (কাবিটা) প্রকল্পের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে।
কাজ না করে প্রকল্পের টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন শাহজাদাপুর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ ফারুক মিয়া ও বিএনপি নেতা শেখ মো. মিলন ।
এ ঘটনায় উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলাম এর কাছে কাজের অনিয়মের বিষয়ে ঐ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে এলাকাবাসীর নানা অভিযোগ রয়েছে।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ২০২০-২১ অর্থবছরে মলাইশ- শাহজাদাপুর রাস্তা পূর্ণ নির্মাণের জন্য মাটি ভরাট কাজে ৮ লক্ষ ৫২ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয় ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের সংসদ সদস্য উকিল আব্দুস ছাত্তার। এর মধ্যে প্রকল্পের সভাপতি ৩নং ইউপি সদস্য মোঃ ফারুক মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক বিএনপি নেতা মো. মিলন মিয়া মাটি ভরাট না করে নামে মাত্র একটি স্কেবেটার মেশিন দিয়ে সামান্য মাটি কেটে রাস্তা নির্মাণের নামে টাকা আত্মসাত করেছেন।
কাজ শুরুর সাথে সাথে প্র্রকল্পের ৬ লক্ষ ৩৫ হাজার টাকা উঠিয়ে নেয় তারা । বর্তমানে কাজ বন্ধ রেখে বাকী টাকা উঠানোর চেষ্টা চালায় । উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে বিভিন্ন নেতা দিয়ে ফোন করে বিলের বাকী টাকা পরিশোধ করার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। এদিকে রাস্তা সঠিক ভাবে সংস্কার না করার কারণে এ এলাকার প্রায় ৫০ বিঘা জমির কৃষকের ফসল নষ্ট হওয়ার পথে । জমির পানি সরবরাহ বন্ধ করে রাস্তায় মাটি ফেলা হয়। এতে কৃষক বিপাকে পড়েছে। রাস্তায় স্কেবেটার দিয়ে এলোমেলো ভাবে নামে মাত্র মাটি ভরাট করে । রাস্তা দিয়ে অটোরিক্সা, ভ্যানও মোটরসাইল ছাড়া অন্য কোন ভারি যানবহন ওই রাস্তা দিয়ে চলা ফেরা করতে পারছেনা।
কাজ না করে সরকারী টাকা আত্মসাৎ বিষয়টি এলাকাবাসী জানতে পেরে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলামকে মুঠোফোনের মাধ্যমে জানায়।
এবিষয়ে প্রকল্পের সাধারণ সম্পাদক বিএনপি নেতা শেখ মিলন মিয়া বলেন , আমাদের কাজ এখনো বাকী রয়েছে টাকা পাওয়ার পর বাকী কাজ সর্ম্পুন করিব ।
এ বিষয়ে প্রকপ্লের সভাপতি মোঃ ফারুক মিয়া জানান, আমাদের কাজ সর্ম্পুণ হয়েছে । উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকতা আমাদের বিলের বাকী টাকা পরিশোধ করছেন না । কৃষকের ফসলি জমির ড্রেইন বন্ধের বিষয় বলেন কিছুদিন পরে আমি ড্রেইনের বাকী কাজ করে দেব।
এলাকাবাসীর এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে কাজ পরিদর্শন করে কাজের গড়মিল রয়েছে বলে জানান। আমি প্রকল্প সভাপতি মোঃ ফারুক মেম্বারকে একাদিক বার বলেছি সঠিক ভাবে কাজ দ্রুত সামাধা করার জন্য। সে বাকী কাজ না করে একাদিক বিএনপির নেতা দিয়ে ফোন করে আমাকে টাকা পরিষোধ করার জন্য চাপ সৃষ্টি করছে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন










© All rights reserved © 2019 pirojpursomoy.com
Design By Rana