সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০১:২৯ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
কৃষি কর্মকর্তা কর্তৃক সাংবাদিক হেনস্তার প্রতিবাদে চট্টগ্রামে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ কাউখালীতে ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক কমিটি গঠন কাউখালীতে সংসারের হাল ধরতে বাবার পেশা খেয়া ঘাটের মাঝি হলেন স্কুল ছাত্রী মুনিরা ভান্ডারিয়ায় টাস্কফোর্স কমিটির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ভান্ডারিয়ায় ওয়ার্ল্ড ভিশনের দুর্যোগ সামগ্রী বিতরণ ভান্ডারিয়ায় ফুটপাতের অবৈধ দখলমুক্ত করতে উচ্ছেদ অভিযান ভান্ডারিয়ায় বজ্রপাতে কৃষকের ৪ মহিষের মৃত্যু ভান্ডারিয়ায় মুক্তিযোদ্ধাদের অনশন চার ঘন্টা পর প্রত্যাহার ভান্ডারিয়ায় দুই সন্তানের জননীকে ধর্ষনের চেষ্টা॥ লম্পটের আংশিক লিঙ্গ কর্তন কারারক্ষী পদে চাকুরীর প্রলোভন অর্থ আদায় ভান্ডারিয়ায় প্রতারক চক্রের দুই সদস্য গ্রেপ্তার ভান্ডারিয়ায় পাওনা টাকা চাওয়ায় দোকানীকে গরম পানি দিয়ে ঝলসে দেওয়া অভিযোগ (ভিডিও) ভান্ডারিয়ায় পাওয়ার গ্রিডে আগুন ৫ উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ ৪ ঘন্টা বন্ধ কাউখালীতে এনজিও ঋনে সাধারণ মানুষ জর্জরিত মঠবাড়িয়ায় জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে প্রশিক্ষণ ও উপকরন বিতরণ কাউখালীতে মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত সার্ক জার্নালিষ্ট ফোরাম বাংলাদেশ চাপ্টার এর কমিটি ঘোষণা ইন্দুরকানীতে সাঈদীর মামলার রাষ্ট্রপক্ষের সাক্ষীর মৃত্যু পিরোজপুরে জাল টাকা ব্যবসায়ীর ১৪ বছরের কারাদন্ডাদেশ ভান্ডারিয়ায় মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণ মামলার আসামী র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার কাউখালীতে হাতুড়ে ডাক্তার ও কবিরাজদের খপরে পড়ে সাধারণ মানুষ প্রতারণা শিকার
পিরোজপুরে টাউট রফিকুল ইসলামের কাছে এক অসহায় পরিবার জিম্মি ও পালিয়ে বেড়াচ্ছেন

পিরোজপুরে টাউট রফিকুল ইসলামের কাছে এক অসহায় পরিবার জিম্মি ও পালিয়ে বেড়াচ্ছেন

সুমন খান,বিশেষ প্রতিনিধি
পিরোজপুরের নেছারাবাদ স্বরূপকাঠি উপজেলা  রাজাবাড়ী বলদিয়া ইউনিয়নের টাউট রফিকুল ইসলামের কাছে এক অসহায় পরিবার জিম্মি ও পালিয়ে বেড়াচ্ছেন এমন  অভিযোগ করে ভুক্তভুগি পরিবার

ক্ষুদ্র কথার রেশ ধরে বয়স্ক মহিলা,পুরুষ  সহ অল্প বয়সী বধুদের বেধম  মারধর করার গুরুত্বপূর্ণ অভিযোগ উঠেছে বলদিয়া ইউনিয়নের রাজাবাড়ি এলাকায়র মোঃ রফিকুল ইসলাম গংদের বিরুদ্ধে। স্থানীয় সূত্র জানায় রাজাবাড়ি এলাকার মৃত আলকাজ উদ্দিনের ছেলে মোঃ রফিকুল ইসলামের (৬০) পারিবারিক ভাইয়ের  মেয়ে সংক্রান্ত তুচ্ছ কথাকে কেন্দ্র করে মারামারির সূত্রপাত। গত ২২/০৪/২০২১ তারিখ সকালে একতরফা ভাবে অমানবিক কায়দায় মোঃ সান্টুকে অমানবিক কায়দায় মারধর করে। এসময়ে তার স্ত্রী হাফিজা বেগম  ও  তার তিন মেয়েকে মারধোর করারও গুরুত্বপূর্ণ অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় সূত্র আরও জানায়, রফিকের ভাতিজি নজরুলের মেয়ে লামিয়ার(১৭) বিয়ে হয় মাত্র একমাস আগে বিবাহিত ছেলে রাজাবাড়ি এলাকায়র নষ্ট প্রকৃতির বিবাহিত মোঃ লিটুর সাথে। এক মাস আগে বিয়ে হওয়া লামিয়ার আগাম বাচ্চা হওয়ার সংবাদ রাজাবাড়ি এলাকায় মুহুর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। আর সেই রেশ ধরে টাউট ও নারী লোভী রফিক প্রতিবেশী সান্টু(৫৫) সহ হাফিজা(৪০), সালমা(২৩), আসমা(১৯) কে অমানবিক কায়দায় মারধর করার গুরুত্বপূর্ণ অভিযোগ উঠেছে। পাশাপাশি রফিকের ভাই  মোঃ  নজরুলের দুই  মেয়ে ও ছেলের বউ সাবিনাও মারামারিতে অংশ নেয় বলে এলাকার লোকজন গণ মাধ্যম কর্মী দের জানান। এদিকে আন্তর্জাতিক বুদ্ধিমান ও টাউট খ্যাত রফিকের বউ সহ চার মেয়েও নিঃলজ্জ ভাবে বেহায়ার মত  হাফিজা ও তার  তিন  মেয়েদেরকে সংঘবদ্ধ হয়ে  মারধর করে।তবে  আসমার মাকে কামড়াতেও ভুল করেনি নষ্ট চক্ররা। অবশ্য  বিতর্কিত  পরিবারের নজরুল ও রফিকের মেয়েরা আসমাকে মারতে মারতে বিবশ্র  করে ফেলে বর্বর কায়দায়। রফিক ও নজরুল গংরা সান্টুর ছেলে আজীম কে মারতে ভুল করেনি। গত ২৪ তারিখের ঘটনা নিয়ে সমগ্র স্বরূপকাঠি  এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়।  এ ব্যাপারে হাজীবাড়ী এলাকার বেশির লোকজন গণ মাধ্যম কর্মীদের জানান, লামিয়ার বিষয়ে তুচ্ছ কথাকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী কায়দায় মারধর করা ঠিক হয়নি। কোন সভ্য পরিবারের সদস্যরা এত বড় নগন্য কাজ করতে পারেনা। অবশ্য  ভিন্ন কথা বলেন বেশ কিছু সচেতন   লোকজন। তারা অকপটে বলেন রফিক আমাদের এলাকায় একজন টাউট হিসেবে সকলে চিনে। সকল প্রকার খারাপ কাজ করতেও দ্বিধা বোধ করে না। আপন ভাতিজা লামিয়া কে নিয়ে নষ্ট খেলায় মেতেছেন। বয়স হওয়ার আগেই ভূয়া কাগজ পত্র তৈরি করে লম্পট বিবাহিত লিটুর সাথে গোপনে বাল্য বিয়ে দেয়। অপর দিকে লিটু তার সদ্য তিন মাসের বিবাহিত স্ত্রীকে জোর করে তালাপ দেয় বলে এলাকার লোকজন জানান। আসলেই রফিক ও নজরুলের পরিবার আমাদের এলাকায় চরম বিতর্কিত। স্বার্থের জন্য এরা সবকিছু করতে পারে।
 এদিকে মারামারির ঘটনাকে কেন্দ্র করে নেছারাবাদ থানায় প্রথমে অভিযোগ  করেন মোঃ সান্টু মিয়া । পরবর্তীতে থানা কতৃপক্ষ সঠিক  তথ্য উদঘাটন করে মামলা নেন। মামলার বাদী মোঃ সান্টু মিয়া। মামলার ধারা অনুযায়ী
১৪৩/৩৪১/৩২৩/৩৫৪/৩৭৯/৫০৬ পেনাল কোড অনুযায়ী মামলা লিপিবদ্ধ হয়। মামলার প্রধান আসামী মোঃ রফিকুল ইসলাম (৬০), মোঃ নজরুল ইসলাম (৫৪), মোঃ বেল্লাল (৩০), মোঃ লিটু(২৫), মোসাঃ শরীফা(৩৫), মোসাঃ খাদিজা ((২৮) ও মোসাঃ সাবিনা (২৭) প্রমুখ। সর্বশেষ তথ্য মতে বর্তমানে আসামীরা গাঢাকা দিয়েছে বলে এলাকার লোকজন জানান।এলাকার স্থানীয় জনপ্রতিনিধি সমগ্র ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। স্থানীয় চেয়ারম্যান মোঃ শাহিন আহমেদও পুরো বিষয়টি নিয়ে কঠিন নিন্দা জানায়। পাশাপাশি প্রকৃত অপরাধীর কঠিন শান্তির দাবি জানান।
অবশ্য নেছারাবাদ  থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাহসী উচ্চারণ করা অফিসার আবির মোঃ হোসেন গণ মাধ্যম কর্মীদের জানান, সমগ্র  ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।সব কিছু যাছাই বাছাই করার পর  মামলা নেওয়া হয়েছে। তবে সান্টু মিয়া  মিডিয়াকে বলেন, আমি ন্যায়ের পক্ষে সঠিক বিচার চাই। লম্পট মোঃ রফিকের  দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানান।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন










© All rights reserved © 2019 pirojpursomoy.com
Design By Rana