শুক্রবার, ২৫ Jun ২০২১, ০৩:২৬ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
ভান্ডারিয়ায় দুই দিনে করোনা সংক্রামন হঠাৎ উর্দ্ধমূখী ভান্ডারিয়া মাদ্রাসা ছাত্রীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার পিরোজপুরে শনিবার থেকে ৪ পৌরসভায় কঠোর লকডাউন ভান্ডারিয়ায় ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর ঘরে অগ্নিসংযোগ ভান্ডারিয়ায় নির্বাচনি সহিংসতা এক জনকে পিটিয়ে আহত ঘরের দলিল ও চাবি পেয়ে হাজেরার আকুতি আহ: নিজের ঘরে থাকব, বেঁচে থাক হাসিনা’ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘর পাওয়াদের মধ্যে একজনের আকুতি” মরে গেলেও দুঃখ নেই, মেয়েগুলোর একটা ঠাঁই হয়েছে ইন্দুরকানীতে উপজেলা পর্যায়ে নারির সেবামুলক কাজের স্বিকৃতি বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত মঠবাড়িয়ায় নব নির্বাচিত চেয়ারম্যানকে সংবর্ধনা মঠবাড়িয়ায় পৌরসভায় ৪৫ কোটি টাকার প্রাক বাজেট ঘোষাণা সিরাজুল ইসলাম ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার  হিসেবে যোগ দিচ্ছেন পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে বালিপাড়া ইউপি নির্বাচনে কবির হোসেন বয়াতী নৌকা প্রতিকে বিজয়ী দক্ষিণ সুনামগঞ্জের বাস ও প্রাইভেট কারের সংঘর্ষে নিহত ১,আহত ৩ মঠবাড়িয়ায় খালার বাড়ি বেড়াতে এসে লাশ হলো কলেজ ছাত্র ভাণ্ডারিয়ায় ইউপি নির্বাচনে জেপি মনোনিত তিন জন আওয়ামীলীগ মনোনিত এক জন চেয়ারম্যান নির্বাচিত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪ হাজার ছাড়িয়েছে মঠবাড়িয়ায় কাল ৬টি ইউপিতে নির্বাচন ॥ ৪ স্তরের নিরাপত্তা মঠবাড়িয়ায় দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে আহত ২০॥ থানায় মামলা, প্রার্থীসহ ৩ জন আটক পিরোজপুরে ২০০৪ জন গৃহে পরিবার পেল মুজিব বর্ষের নতুন ঘর মঠবাড়িয়ায় দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ২০॥ প্রার্থীসহ ৩ জন আটক
ময়লা আবর্জনার দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ রাজাপুর সদরবাসী, সৃষ্টি হচ্ছে মশা-মাছির আবাসস্থল!

ময়লা আবর্জনার দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ রাজাপুর সদরবাসী, সৃষ্টি হচ্ছে মশা-মাছির আবাসস্থল!

কামরুল হাসান মুরাদ :: ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর উপজেলা সদরসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ন স্থান ডাস্টবিনে পরিণত হয়েছে। ডাষ্টবিন না থাকায় যত্রতত্র ময়লা ফেলা হচ্ছে। ফলে আবর্জনার দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে স্থানীয় বাসিন্দারা। এই ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার করার ব্যাপারে নেওয়া হয়নি কোন উদ্যোগ। পথে পথে আবর্জনার কারনে আবর্জনার শহরে পরিনত হচ্ছে রাজাপুর উপজেলা সদর। কার্যকর কোনো ব্যবস্থা গড়ে না ওঠায় দুর্গন্ধে বাতাস দূষিত হচ্ছে। এ ছাড়া টানা বৃষ্টিতে জমে থাকা ময়লা যত্রতত্র ছড়িয়ে পড়েছে। এতে দুর্গন্ধে আবাসিক এলাকার মানুষ, শিক্ষার্থী, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন অফিসগামী মানুষ ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। সরজমিনে দেখা গেছে, উপজেলার সদরের প্রানকেন্দ্রে অবস্থিত রাজাপুর মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের খেলার মাঠের পাশে টিএন্ডটি অফিসের (পশ্চিম-দক্ষিন) দুই পাশে, বাগরি বাজারের খালে, রাজাপুর সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের সামনে সরকারি পুকুরের পাড়ে, বাজার ব্রিজ এর নিচে ও বাজারের খালে, মেডিকেল মোড়ে, বাইপাশ মোড়ে ও বাইপাশ খালে, পুরাতন জেলখানার পশ্চিম পাশে মহাসড়কের পাশেসহ সদরের মূল স্থানগুলোতে ময়লা-আবর্জনার স্তূপ একাকার। উপজেলা সদরে কোথাও ময়লা ফেলার সুনির্দিষ্ট স্থান ও ডাষ্টবিন না থাকায় সদরবাসী পলিথিনে ভরে সড়কেই ফেলে রাখছেন আবর্জনা। দিনের পর দিন ময়লা পড়ে থাকছে। ফলে বৃষ্টির পানিতে এসব ময়লার স্তূপ যত্রতত্র ছড়িয়ে পড়ছে। সৃষ্টি হচ্ছে মশা-মাছির আবাসস্থল। দিন দিন এ ময়লা আবর্জনার ভাগাড়ের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। উপজেলা সদর জুড়েই ফেলা হচ্ছে ময়লা-আবর্জনা। ফলে অলিগলিতে পড়ে আছে ময়লা-আবর্জনার স্তূপ, এ কারনে পথচারীরা স্বাভাবিকভাবে হাটতে পারেনা। এতে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে সাধারন মানুষকে। আরো জানা যায়, বাঘড়ী হাটের ময়লা, বাজারের ময়লা, হোটেল রেস্টুরেন্ট এর ময়লা,দধির বড়ো বড়ো হাঁড়ি, অগণিত পলিথিন সব খালে ও বিভিন্ন রাস্তার পাশে, ডোবায় ফেলা হচ্ছে, ফলে খালগুলি দ্রুত ভরে যাচ্ছে ও রাস্তায় চলতে মানুষের ভোগান্তি হচ্ছে। উপজেলা সদরে সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের সামনে সরকারি ২ টি পুকুরে পলিথিনসহ ময়লা আবর্যনা ফেলার ফলে পুকুর ২ টি মাচ চাষের অনুপযোগী হয়ে গেছে। সদরবাসী জানান, আবর্জনার দুর্গন্ধে আমরা অতিষ্ঠ। রাস্তা-ঘাটে যত্রতত্র ময়লা ও আবর্জনা ফেলায় পরিবেশ দূষিত হচ্ছে, সৃষ্টি হয় বিকট দুর্গন্ধ। উপজেলা সদরে কোথাও ময়লা ফেলার সুনির্দিষ্ট স্থান ও ডাষ্টবিন না থাকায় বাধ্য হয়ে খোলা জায়গায় ময়লা আবর্জনা ফেলছে তারা। এতে প্রতিনিয়ত দুর্ভোগে পড়ছে সাধারন পথচারীরা। উপজেলার ব্যবসায়িরা জানান, উপজেলা সদরে আবাসিক বসতবাড়ি, দোকান, হোটেল,রেস্টুরেন্ট, কনফেকশনারি, কয়েকটি ক্লিনিক, হাট বাজারের ডাক ও ট্রেড লাইসেন্স থেকে উপজেলা পরিষদ ও ইউনিয়ন পরিষদ বছরে অনেক টাকা নিলেও তাদের থেকে সেবা পাচ্ছেনা জন-সাধারণ ও ব্যাবসায়ী প্রতিষ্ঠান গুলো। ৬নং মঠবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মোস্তফা কামাল সিকদার বলেন, উপজেলার বৃহত্তর হাট-বাজার বাগড়ি বাজারে ময়লা পরিস্কার করার জন্য এক জন কর্মী রয়েছে, সে বাজার শেষ হলে বাজার পরিস্কার করে বাজারের ময়লা ফেলার নিধারিত স্থানে ফেলে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোক্তার হোসেন বলেন, এই বিষয়ে উপজেলা প্রশাসন উদ্যোগ নিয়েছে, স্থায়ী ভাবে সমাধানের জন্য সবার সাথে আলোচনা চলছে, আলোচনা শেষ হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন










© All rights reserved © 2019 pirojpursomoy.com
Design By Rana