বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০২:১৪ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
ভান্ডারিয়ায় গাঁজা সহ নারী মাদক কারবারি গ্রেফতার Riverboat Casino Online মহাসড়কে টোল আদায় না করতে মেয়রদের নির্দেশনা নেছারাবাদের কুড়িয়ানা বাজারে অগ্নিকান্ডে ২১টি দোকান পুড়ে ভস্মীভূত : কোটি টাকার ক্ষতি কাউখালীতে বিএনপির উদ্যোগে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যানের মহতি উদ্যোগ মঠবাড়িয়ায় জাতীয় পার্টির নেতাকে কুপিয়ে পা বিচ্ছিন্ন ভান্ডারিয়ায় উপজেলা শিক্ষক কর্মচারী ঐক্য জোটের কমিটি গঠন প্রায় ৩৩ কেজির ভোল মাছ, ৩ কোটি টাকা দাম হাঁকাচ্ছেন জেলে (ভিডিও) ভান্ডারিয়া উপজেলা জাতীয় পার্টি-জেপি’র পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন কাঠালিয়ায় খাল ও প্রাতিষ্ঠানিক জলাশয়ে পোনা মাছ অবমুক্তকরণ মোটর সাইকেল দূর্ঘটনায় দাখিল পরীক্ষার্থী নিহত, আহত-১ পিরোজপুরে সদ্য উদ্বোধন হওয়া বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব সেতুর পিলারে বালু বোঝাই কার্গোর ধাক্কা কাউখালীতে বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষ্যে রেলি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ইন্দুরকানীতে চালককে অচেতন করে ইজিবাইক ছিনতাই দূর্গাপূজা উপলক্ষে ভান্ডারিয়া থানা পুলিশের মতবিনিময় সভা কাউখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছাম্মৎ খালেদা খাতুন রেখা জেলার শ্রেষ্ঠ ইউএনও নির্বাচিত হয়েছে ভান্ডারিয়ায় মাছের পোনা বিতরণ ও অবমুক্তকরণ কাউখালীতে দিনব্যাপী সমবায় ভ্রাম্যমান প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত ইন্দুরকানী সড়ক যেনো মরন ফাঁদ
মানবতাবিরোধী অপরাধ নেত্রকোনার বদর কমান্ডার খলিলের মৃত্যুদণ্ড

মানবতাবিরোধী অপরাধ নেত্রকোনার বদর কমান্ডার খলিলের মৃত্যুদণ্ড

একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে নেত্রকোনার আল-বদর কমান্ডার খলিলুর রহমানকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ মঙ্গলবার বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এ রায় দেন।

মুক্তিযুদ্ধে সময় নেত্রকোনার দুর্গাপুর ও কলমাকান্দায় ২২ জনকে হত্যা, একজনকে ধর্ষণসহ মানবতাবিরোধী অপরাধের পাঁচটি অভিযোগ আনা হয়েছিল এ মামলায়। রায়ে সবগুলো অভিযোগেই তাকে দোষী প্রমাণ করতে পেরেছে রাষ্ট্রপক্ষ।

এর মধ্যে চারটি অভিযোগে পলাতক এ আসামিকে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড এবং একটি অভিযোগে ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল।

 

রাষ্ট্রপক্ষে এ মামলায় ছিলেন প্রসিকিউটর রানা দাশগুপ্ত ও রেজিয়া সুলতানা চমন। আসামিপক্ষে ছিলেন রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী গাজী এম এইচ তামিম। রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছে রাষ্ট্রপক্ষ। তবে রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী তামিম বলছেন, ‘তার মক্কেল ন্যায়বিচার পাননি। তবে আইন-আদালতের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দণ্ডিত এ আসামি যদি আত্মসমর্পণ করে রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন, তবে তিনি ন্যায়বিচার পাবেন। ’

মামলায় বলা হয়, ১৯৭১ সালে ইসলামী ছাত্র সংঘের সদস্য খলিলুর রাজাকার বাহিনীতে যোগ দেন। পরে চণ্ডিগড় ইউনিয়ন আল-বদর বাহিনীর কমান্ডার হন। সে সময় মুসলিম লীগের সমর্থক আজিজুর, আশক ও শাহনেওয়াজ একই ইউনিয়নে রাজাকার বাহিনীর সদস্য ছিলেন। আসামিদের সবাই এলাকায় জামায়াতে ইসলামীর সমর্থক হিসেবে পরিচিত।

এ মামলার অভিযোগ তদন্ত করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা বদরুল আলম। ২০১৫ সালের ৩০ এপ্রিল তদন্ত শুরু হয় পাঁচ আসামির বিরুদ্ধে। দুই বছর তদন্তের পর ২০১৭ সালের ৩০ জানুয়ারি এ মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দেয় তদন্ত সংস্থা। সে সময় আসামি ছিলেন ৫ জন। তাদের মধ্যে রমজান আলী নামের এক আসামি ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

অপর চার আসামি নেত্রকোনার দুর্গাপুর থানার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের মো. খলিলুর রহমান, তার ভাই মো. আজিজুর রহমান, একই থানার আলমপুর ইউনিয়নের আশক আলী এবং জানিরগাঁও ইউনিয়নের মো. শাহনেওয়াজের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন ট্রাইব্যুনাল।

সে সময় চার আসামির মধ্যে খলিলুর রহমান পলাতক ছিলেন। বিচার চলাকালে কারাগারে থাকা তিন আসামিও মারা যান বিভিন্ন সময়ে। ফলে মঙ্গলবার কেবল খলিলের বিরুদ্ধেই রায় ঘোষণা করলেন আদালত।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন










© All rights reserved © 2019 pirojpursomoy.com
Design By Rana