সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ০১:২৭ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
রাষ্ট্রীয় সম্মান নিয়ে কাউখালীর বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমানের শেষ বিদায় কাউখালীতে ব্রীজ নির্মান কাজ ৫ বছরে শেষ না হওয়ায় জনগনের ভোগান্তি চরমে কাউখালীতে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস উপলক্ষে শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র উন্নত ও স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলার একটি অংশ–মহিউদ্দিন মহারাজ (এমপি) মায়ের লাশ বাড়িতে রেখে এসএসসি পরীক্ষার হলে দুই ভাই ভান্ডারিয়ায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাবুদ্দিন শাহ বাবুল মারা গেছেন পিরোজপুরে প্রতারণা মামলায় এহ্সান গ্রুপের অফিস সহকারী নাজমুল গ্রেফতার কাউখালীতে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু কাউখালীতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সম্ভাব্য প্রার্থীদের ব্যাপক প্রচারনা ভান্ডারিয়া বিহারী লাল মিত্র পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া নাজিরপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ২ শিক্ষার্থী নিহত কাউখালীতে উপজেলা প্রশাসন অনাবাদি জমি আবাদে আনার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে কাউখালীতে অবৈধ জাল দিয়ে মাছ ধরার অপরাধে জেলেকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত কাউখালীতে অগ্নিকাণ্ডে বসতবাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে সংসদে ইমাম-মুয়াজ্জিনের সম্মানজনক ভাতা দাবি মহিউদ্দীন মহারাজের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটি সদস্য হয়েছে মহিউদ্দীন মহারাজ পিরোজপুরে উজ্জ্বল হত্যার মামলার প্রধান আসামি গ্রেপ্তার পিস্তল ঠেকিয়ে শিক্ষককে হাতুরিপেটার অভিযোগ বেবী মালেঙ্গা খ্যাত কাউখালীর ক্রিকেটার সোহাগের স্বপ্ন ছাই হয়ে যাবে অর্থাভাবে
মানিকগঞ্জে দেবরের হাতে খুন হলো ভাবী-ভাতিজা

মানিকগঞ্জে দেবরের হাতে খুন হলো ভাবী-ভাতিজা

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় মা ও শিশু সন্তান খুনের রহস্য উম্মোচিত হয়েছে। হত্যার কথা শিকার করে দেবর সোলাইমান হোসেন ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

হত্যাকাণ্ডের শিকার পারভীন আক্তার দেবর সোলাইমান হোসেনকে বিয়ের জন্য চাপ দিচ্ছিল। ভাবীর এই আচরণ সহ্য করতে না পেরে ধারালো ছুড়ি দিয়ে হত্যা করে ভাবী পারভীন ও ভাতিজা আব্দুর নূরকে।
শুক্রবার সন্ধ্যায় মানিকগঞ্জ সিনিয়ন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত ৯ এর বিচারক জান্নাতুল রাফিন সুলতানের কাছে মামলার একমাত্র আসামি সোলাইমান হোসেন ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দেন। আসামি সোলাইমানকে রাতেই আদালত থেকে জেল হাজতে পাঠানো হয়। এই ঘটনায় নিহত পারভীনের মা মজিরন বেগম বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মানিকগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান ১৬৪ ধারা জবানবন্দিতে আসামী সোলাইমান হোসেন স্বীকারোক্তি করেছেন। স্বীকারোক্তি অনুয়ায়ী আসামি সোলাইমান হোসেনের সাথে তার মেঝ ভাই মজনুর স্ত্রী পারভীনের পরকীয়ার সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত তিন মাস আগে সোলাইমান মালয়েশিয়া থেকে পড়াশুনা করে দেশে আসে। ভাবী পারভীন সোলাইমানকে বিয়ের জন্য চাপ প্রয়োগ করে আসছিল। ঘটনার দিন ৮ জানুয়ারি রাত ১০টার দিকে সোলাইমান হোসেন ভাবী পারভীনের ঘরে ঢুকে। পারভীন আক্তার সোলাইমানকে বিয়ের জন্য চাপ প্রয়োগ করে। সোলায়মান বিয়েতে রাজি না হওয়ায় পারভীন আক্তার হুমকি দেন তার নিজের দুই ছেলে, স্বামীকে হত্যা করা হবে। এই নিয়ে দুই জনের মধ্যে কথাকাটি ও উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। সোলাইমান ঘরে থাকা ধারালো ছুরি দিয়ে ভাবীর গলায় ছুড়িকাঘাত করে। ওই সময় ভাতিজা আব্দুর নুর জেগে ওঠলে তাকে চাকু দিয়ে হত্যা করে সে। দুই জনের হত্যা নিশ্চিত করে রক্তমাখা চাকু ও তার পরিহিত কাপড় চোপড় ধুয়ে ফেলে সোলাইমান। এর পর নিজ ঘরে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন।

উল্লেখ্য, বুধবার রাতে প্রবাসী মজনু মিয়ার স্ত্রী ও শিশু সন্তানকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়। বৃহস্প্রতিবার সকালে পুলিশ তাদের লাশ উদ্ধার করে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 pirojpursomoy.com
Design By Rana