সোমবার, ২৪ Jun ২০২৪, ০৪:০৫ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
সকলে মিলে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করলে এলাকার শতভাগ উন্নয়ন করা সম্ভব- মহিউদ্দিন মহারাজ এমপি ভান্ডারিয়ায় বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত মঠবাড়িয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী বায়জিদ কাউখালীতে মাদ্রাসার ছাত্রের আত্মহত্যা কাজল সভাপতি- নুর উদ্দিন সম্পাদক পিরোজপুর সাংবাদিক ইউনিয়নের কমিটি গঠন ভাণ্ডারিয়ায় গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী পলাতক ভান্ডারিয়ায় ঘূর্ণিঝড় রেমালে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে সংসদ সদস্য মহিউদ্দিন মহারাজের খাদ্য সহয়তা বিতরণ কাউখালীতে ত্রাণ না পাওয়া মহিলা মেম্বারের পরিবারের উপর হামলা। নিহত-১ গ্রেফতার-২ কাউখালিতে ঘূর্ণিঝড় রিমেলে বিধ্বস্ত জোলাগাতি মাদ্রাসা , খোলা আকাশের নিচে পাঠদান ভান্ডারিয়ায় ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে শক্তি ফাউন্ডেশনের সহায়ত প্রদান কাউখালীতে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের শাহাদত বার্ষিকী পালন করা হয় মঠবাড়িয়ায় চেয়ারম্যান পদের প্রার্থিতা বাতিলের পরও সভা : কর্মীদের বাঁশের লাঠি নিয়ে প্রস্তুতির নির্দেশ মঠবাড়িয়ার চেয়ারম্যান প্রার্থী রিয়াজের প্রার্থিতা বাতিল কাউখালীতে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতিসহ ৪ প্রার্থী জামানত হারান কাউখালীতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আবু সাঈদ মিয়া পুনরায় উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত ভান্ডারিয়ায় মিরাজুল ইসলামের জন্মদিন উপলক্ষে দোয়া অনুষ্ঠান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে সকল ষড়যন্ত্র রাজপথে মোকাবেলা করতে হবে — যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ভান্ডারিয়ায় শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ভান্ডারিয়া উপজেলা যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত ভান্ডারিয়ায় মৎস্যজীবিদের মাঝে জাল ও বকনা বাছুর বিতরণ
পরীক্ষা শেষের আনন্দে ধর্ষণে মাতলো কিশোরেরা, গাছে ঝুলন্ত ধর্ষিতার লাশ

পরীক্ষা শেষের আনন্দে ধর্ষণে মাতলো কিশোরেরা, গাছে ঝুলন্ত ধর্ষিতার লাশ

দশম শ্রেণির পরীক্ষা শেষ হওয়ার আনন্দে খাওয়াদাওয়ার পরে গ্রামের সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করল এক দল কিশোর। ধর্ষণের পর ওই কিশোরীকে হত্যা করে গাছে ঝুলিয়ে রাখে তারা। ভারতের আসাম রাজ্যে বিশ্বনাথ জেলায় ভয়াবহ এই ঘটনা ঘটে।

আনন্দবাজার পত্রিকা জানায়, ধর্ষকদের মধ্যে ছিল মেয়েটির প্রেমিকও। সে-ই পরে শ্বাসরোধ করে মারে ওই কিশোরীকে। পরে সবাই মিলে ওই কিশোরীকে খেতের মধ্যে গাছে ঝুলিয়ে আত্মহত্যার নাটক সাজায়। তবে অভিযুক্ত দু’জনকে ধরে ফেলে গ্রামবাসী। গণপিটুনিতে দিয়ে তাদের পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। আহত এক কিশোরকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, বাকি পাঁচ অভিযুক্ত কিশোরকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবার তাদের আদালতে তোলা হবে। অভিযুক্ত সাত কিশোর গোহপুরের রজাবাড়ি এলাকায় ১ নম্বর চকলা গ্রামের বাসিন্দা। পরীক্ষা শেষের আনন্দে ২৮ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার রাতে খানাপিনার আয়োজন করে। প্রতিবেশী ১২ বছরের কিশোরীকেও তাদের সঙ্গে যোগ দিতে নিয়ে আসে।

ওই কিশোরী রাতে বাড়ি না-ফেরায় পরিবারের মানুষ খোঁজ শুরু করেন। পরদিন খেতের পাশে গাছ থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় মেয়েটির দেহ পাওয়া যায়। প্রথমে এটি আত্মহত্যার ঘটনা মনে হলেও, ডাক্তারি পরীক্ষার পর জানা যায়, মেয়েটিকে গণধর্ষণ করে হত্যা করা হয়েছে।

মেয়েটির পরিবার অভিযুক্ত সাতজনের নামে অভিযোগ দায়ের করেছে। তাদের মধ্যে দুই কিশোরকে গ্রামবাসীরা খুঁজে বের করে গণপিটুনি দেয়। তাদের মধ্যে একজন মেয়েটির প্রেমিক বলে জানা গেছে। অন্যজন মেয়েটিকে বাড়ি থেকে নিয়ে গিয়েছিল।

​এদিকে ময়নাতদন্তের পরে কিশোরী মরদেহ সমাধিস্থ করে গ্রামবাসীরা। অভিযুক্ত কিশোরদের কঠোর শাস্তির দাবিতে সোমবার গোহপুর থানা ঘেরাও করে গ্রামের মানুষ। অভিযুক্তদের ফাঁসির দাবিতে এলাকার শিক্ষার্থীরা মিছিল বের করে।

 

সুত্র bd24live.com

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 pirojpursomoy.com
Design By Rana
error: Content is protected !!