সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ০৪:৫৯ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
রাষ্ট্রীয় সম্মান নিয়ে কাউখালীর বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমানের শেষ বিদায় কাউখালীতে ব্রীজ নির্মান কাজ ৫ বছরে শেষ না হওয়ায় জনগনের ভোগান্তি চরমে কাউখালীতে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস উপলক্ষে শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র উন্নত ও স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলার একটি অংশ–মহিউদ্দিন মহারাজ (এমপি) মায়ের লাশ বাড়িতে রেখে এসএসসি পরীক্ষার হলে দুই ভাই ভান্ডারিয়ায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাবুদ্দিন শাহ বাবুল মারা গেছেন পিরোজপুরে প্রতারণা মামলায় এহ্সান গ্রুপের অফিস সহকারী নাজমুল গ্রেফতার কাউখালীতে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু কাউখালীতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সম্ভাব্য প্রার্থীদের ব্যাপক প্রচারনা ভান্ডারিয়া বিহারী লাল মিত্র পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া নাজিরপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ২ শিক্ষার্থী নিহত কাউখালীতে উপজেলা প্রশাসন অনাবাদি জমি আবাদে আনার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে কাউখালীতে অবৈধ জাল দিয়ে মাছ ধরার অপরাধে জেলেকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত কাউখালীতে অগ্নিকাণ্ডে বসতবাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে সংসদে ইমাম-মুয়াজ্জিনের সম্মানজনক ভাতা দাবি মহিউদ্দীন মহারাজের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটি সদস্য হয়েছে মহিউদ্দীন মহারাজ পিরোজপুরে উজ্জ্বল হত্যার মামলার প্রধান আসামি গ্রেপ্তার পিস্তল ঠেকিয়ে শিক্ষককে হাতুরিপেটার অভিযোগ বেবী মালেঙ্গা খ্যাত কাউখালীর ক্রিকেটার সোহাগের স্বপ্ন ছাই হয়ে যাবে অর্থাভাবে
ভান্ডারিয়ার উপজেলা চেয়ারম্যান মিরাজুল ইসলামের ব্যক্তিগত অর্থায়নে বকুলী পেল নতুন ঘর

ভান্ডারিয়ার উপজেলা চেয়ারম্যান মিরাজুল ইসলামের ব্যক্তিগত অর্থায়নে বকুলী পেল নতুন ঘর

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ পলিথিন দিয়ে ছাপড়া ঘরে ৬জনে থাকতাম। বর্ষা ও শীত মৌসুমে ঠিকমত ঘুমাতে পারতাম না।বৃষ্টি ও কুয়াশা বেশী হলে শরীরে পানি পড়ত। খুব কষ্ট হত। কখনও ভাবতে পারিনি টিনের ঘরে থাকব। উপজেলা চেয়ারম্যান সাব ঘর করে দিয়েছেন। এখন সেখানে একটু শান্তিতে থাকতে পারব। যে আমাকে শান্তিতে থাকার ব্যবস্থা করে দিয়েছে, তাকেও আল্লাহ শান্তিতে রাখবে। এই বলে চুপ করে ছিলেন বকুলি বেগম। ছিলো চোখের কোন পানি। পাশে থাকা বকুলীর মেয়ে রুপার চোখ বেয়ে পানি পড়ছিল, আবেগ আল্পুত হয়ে পরে পরিবারটি। পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ মিরাজুল ইসলাম এর ব্যক্তিগত অর্থায়নে নির্মিত ঘরে (টিনের ঘর) বসে মঙ্গলবার সকালে এসব কথা বলছিলেন ভান্ডারিয়া পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের বকুলী বেগম।

ভান্ডারিয়া উপজেলা জাতীয় ছাত্র সমাজের যুগ্ম আহবায়ক আফজাল হোসেনের প্রচেষ্টায় বিষয়টি ভান্ডারিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ মিরাজুল ইসলামের নজরে আসে । বকুলির মেয়ে বলেন, আমাদের ঘরের অবস্থা খুব খারাপ ছিল। বৃদ্ধ মাকে নিয়ে থাকতে খুব কষ্ট হত। রোদ, ঝড়, বৃষ্টিতে মাঝে মাঝেই মা অসুস্থ্য হয়ে যেত। চেয়ারম্যান সাহেব আমাদের একটি ঘর করে দিয়েছে। এখন এখানে শান্তিতে থাকতে পারব।

মোঃ আফজাল হোসেন বলেন আমি মানবিকতার তাগিদে ভান্ডারিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ মিরাজুল ইসলাম এর নিকট বিষয়টি উপস্থাপন করিলে তিনি তাৎক্ষনিক বকুলি বেগমের বাড়ী পরিদর্শন পূর্বক প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা গ্রহনের নিদের্শ দেন।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 pirojpursomoy.com
Design By Rana