সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০৪:১৭ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
ভান্ডারিয়ায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী পালিত কৃষি কর্মকর্তা কর্তৃক সাংবাদিক হেনস্তার প্রতিবাদে চট্টগ্রামে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ কাউখালীতে ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক কমিটি গঠন কাউখালীতে সংসারের হাল ধরতে বাবার পেশা খেয়া ঘাটের মাঝি হলেন স্কুল ছাত্রী মুনিরা ভান্ডারিয়ায় টাস্কফোর্স কমিটির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ভান্ডারিয়ায় ওয়ার্ল্ড ভিশনের দুর্যোগ সামগ্রী বিতরণ ভান্ডারিয়ায় ফুটপাতের অবৈধ দখলমুক্ত করতে উচ্ছেদ অভিযান ভান্ডারিয়ায় বজ্রপাতে কৃষকের ৪ মহিষের মৃত্যু ভান্ডারিয়ায় মুক্তিযোদ্ধাদের অনশন চার ঘন্টা পর প্রত্যাহার ভান্ডারিয়ায় দুই সন্তানের জননীকে ধর্ষনের চেষ্টা॥ লম্পটের আংশিক লিঙ্গ কর্তন কারারক্ষী পদে চাকুরীর প্রলোভন অর্থ আদায় ভান্ডারিয়ায় প্রতারক চক্রের দুই সদস্য গ্রেপ্তার ভান্ডারিয়ায় পাওনা টাকা চাওয়ায় দোকানীকে গরম পানি দিয়ে ঝলসে দেওয়া অভিযোগ (ভিডিও) ভান্ডারিয়ায় পাওয়ার গ্রিডে আগুন ৫ উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ ৪ ঘন্টা বন্ধ কাউখালীতে এনজিও ঋনে সাধারণ মানুষ জর্জরিত মঠবাড়িয়ায় জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে প্রশিক্ষণ ও উপকরন বিতরণ কাউখালীতে মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত সার্ক জার্নালিষ্ট ফোরাম বাংলাদেশ চাপ্টার এর কমিটি ঘোষণা ইন্দুরকানীতে সাঈদীর মামলার রাষ্ট্রপক্ষের সাক্ষীর মৃত্যু পিরোজপুরে জাল টাকা ব্যবসায়ীর ১৪ বছরের কারাদন্ডাদেশ ভান্ডারিয়ায় মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণ মামলার আসামী র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার
যৌ’নকর্মীদের মৃত্যু হলে লা’শ যা করা হয়

যৌ’নকর্মীদের মৃত্যু হলে লা’শ যা করা হয়

দেশের সর্ববৃহৎ পতিতাপল্লী রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়ায়। এখানকার নারীরা যুগ যুগ ধরে অন্তহীন কষ্ট, গ্লানি, দুঃখ ও যন্ত্রণা, সামাজিক অবহেলা এবং নিষ্ঠুর আচরণের শিকার হয়ে অমানবিক জীবন যাপন করে আসছেন। দীর্ঘদিন ধরে দৌলতদিয়ার যৌ’নকর্মীদের নামাজে জানাজা হত না। ইসলাম ধর্মে বিশ্বাসী হলেও এতদিন জানাজা নামাজ ছাড়াই তাদের সৎকার হয়েছে। মরদেহ নদীতে ভাসিয়ে দেওয়া হতো কিংবা মাটিতে চাপা। সম্প্রতি জানাজা পেলেন দৌলতদিয়ার প্রবীণ যৌ’নকর্মী হামিদা বেগম। ৬৫ বছর বয়সী এই নারীর লা’শ ২ ফেব্রুয়ারি রাতে নামাজে জানাজার পর দাফন করা হয়।

পতিতা কর্মী যুগ যুগ ধরে অন্তহীন কষ্টের কথা তুলে ধরেন। এই পতিতা বলেন, দিনে কোন পতিতা নারীর মৃত্যু হলে সারাদিন লা’শ রাখার পরে রাতে সেই লা’শ ভাসিয়ে দেয়া হতো। চুরি চামারি করে মানুষের অগোচরে লা’শ নদীতে ভাসিয়ে দেয়া হতো। আমরা আমাদের কাঁধে করে নিয়ে লা’শ ভাসিয়ে দিয়েছি। কোন পুরুষ মানুষ ছিল না।
‘যখন কোন যৌ’নকর্মী মৃত্যুবরণ করে তখন রাতে নৌকা ভাড়া করে নদীর মাঝখানে গিয়ে বালু ভর্তি কলসির সাথে রশি এক মাথা বেঁধে অপর মাথা লা’শের সাথে বেঁধে নদীর মাঝে ছেড়ে দেওয়া ততো।’ তিনি আরও বলেন, একটি শিশু বাচ্চা মারা গেলে তার লা’শ আশপাশের জমিতেই পুঁতে রাখার জন্য গিয়েছিলাম। তখন ওই জমির মালিক আমাদের দৌড়িয়েছে তখন আমরা লা’শ রেখেই পালিয়ে আসছি। সে বাচ্চা কিছুক্ষণ পরে নিয়ে আসা হলে রাতে নদীতে গিয়ে ফেলে দিয়ে আসছি। আপনি পর্যন্ত কতগুলি লা’শ নদীতে ভাসিয়ে দিয়েছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, হাজার হাজার লা’শ নদীতে ভাসিয়ে দিয়েছি তা বলে প্রকাশ করা যাবে না।

 

সুত্র bdlive24.com

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন










© All rights reserved © 2019 pirojpursomoy.com
Design By Rana