শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ০৫:৫৫ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
রাষ্ট্রীয় সম্মান নিয়ে কাউখালীর বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমানের শেষ বিদায় কাউখালীতে ব্রীজ নির্মান কাজ ৫ বছরে শেষ না হওয়ায় জনগনের ভোগান্তি চরমে কাউখালীতে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস উপলক্ষে শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র উন্নত ও স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলার একটি অংশ–মহিউদ্দিন মহারাজ (এমপি) মায়ের লাশ বাড়িতে রেখে এসএসসি পরীক্ষার হলে দুই ভাই ভান্ডারিয়ায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাবুদ্দিন শাহ বাবুল মারা গেছেন পিরোজপুরে প্রতারণা মামলায় এহ্সান গ্রুপের অফিস সহকারী নাজমুল গ্রেফতার কাউখালীতে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু কাউখালীতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সম্ভাব্য প্রার্থীদের ব্যাপক প্রচারনা ভান্ডারিয়া বিহারী লাল মিত্র পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া নাজিরপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ২ শিক্ষার্থী নিহত কাউখালীতে উপজেলা প্রশাসন অনাবাদি জমি আবাদে আনার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে কাউখালীতে অবৈধ জাল দিয়ে মাছ ধরার অপরাধে জেলেকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত কাউখালীতে অগ্নিকাণ্ডে বসতবাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে সংসদে ইমাম-মুয়াজ্জিনের সম্মানজনক ভাতা দাবি মহিউদ্দীন মহারাজের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটি সদস্য হয়েছে মহিউদ্দীন মহারাজ পিরোজপুরে উজ্জ্বল হত্যার মামলার প্রধান আসামি গ্রেপ্তার পিস্তল ঠেকিয়ে শিক্ষককে হাতুরিপেটার অভিযোগ বেবী মালেঙ্গা খ্যাত কাউখালীর ক্রিকেটার সোহাগের স্বপ্ন ছাই হয়ে যাবে অর্থাভাবে
যৌ’নকর্মীদের মৃত্যু হলে লা’শ যা করা হয়

যৌ’নকর্মীদের মৃত্যু হলে লা’শ যা করা হয়

দেশের সর্ববৃহৎ পতিতাপল্লী রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়ায়। এখানকার নারীরা যুগ যুগ ধরে অন্তহীন কষ্ট, গ্লানি, দুঃখ ও যন্ত্রণা, সামাজিক অবহেলা এবং নিষ্ঠুর আচরণের শিকার হয়ে অমানবিক জীবন যাপন করে আসছেন। দীর্ঘদিন ধরে দৌলতদিয়ার যৌ’নকর্মীদের নামাজে জানাজা হত না। ইসলাম ধর্মে বিশ্বাসী হলেও এতদিন জানাজা নামাজ ছাড়াই তাদের সৎকার হয়েছে। মরদেহ নদীতে ভাসিয়ে দেওয়া হতো কিংবা মাটিতে চাপা। সম্প্রতি জানাজা পেলেন দৌলতদিয়ার প্রবীণ যৌ’নকর্মী হামিদা বেগম। ৬৫ বছর বয়সী এই নারীর লা’শ ২ ফেব্রুয়ারি রাতে নামাজে জানাজার পর দাফন করা হয়।

পতিতা কর্মী যুগ যুগ ধরে অন্তহীন কষ্টের কথা তুলে ধরেন। এই পতিতা বলেন, দিনে কোন পতিতা নারীর মৃত্যু হলে সারাদিন লা’শ রাখার পরে রাতে সেই লা’শ ভাসিয়ে দেয়া হতো। চুরি চামারি করে মানুষের অগোচরে লা’শ নদীতে ভাসিয়ে দেয়া হতো। আমরা আমাদের কাঁধে করে নিয়ে লা’শ ভাসিয়ে দিয়েছি। কোন পুরুষ মানুষ ছিল না।
‘যখন কোন যৌ’নকর্মী মৃত্যুবরণ করে তখন রাতে নৌকা ভাড়া করে নদীর মাঝখানে গিয়ে বালু ভর্তি কলসির সাথে রশি এক মাথা বেঁধে অপর মাথা লা’শের সাথে বেঁধে নদীর মাঝে ছেড়ে দেওয়া ততো।’ তিনি আরও বলেন, একটি শিশু বাচ্চা মারা গেলে তার লা’শ আশপাশের জমিতেই পুঁতে রাখার জন্য গিয়েছিলাম। তখন ওই জমির মালিক আমাদের দৌড়িয়েছে তখন আমরা লা’শ রেখেই পালিয়ে আসছি। সে বাচ্চা কিছুক্ষণ পরে নিয়ে আসা হলে রাতে নদীতে গিয়ে ফেলে দিয়ে আসছি। আপনি পর্যন্ত কতগুলি লা’শ নদীতে ভাসিয়ে দিয়েছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, হাজার হাজার লা’শ নদীতে ভাসিয়ে দিয়েছি তা বলে প্রকাশ করা যাবে না।

 

সুত্র bdlive24.com

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019 pirojpursomoy.com
Design By Rana